পাত্রী খুঁজছে পরিবার! শাকিবের বাসায় ঢুকতে মানা অপু–বুবলীর

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৮ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০৪
...
অপু বিশ্বাস ও শবনম বুবলী দুজনই চিত্রনায়ক শাকিব খানের কাছে এখন অতীত। বছর দেড়েক আগে গণমাধ্যমে এমন মন্তব্য করেছিলেন ঢালিউডের জনপ্রিয় এই তারকা। তারপরও নানা সময়ে দুজনই টেলিভিশন, অনলাইন, প্রিন্টসহ নানা জায়গায় শাকিব খানকে জড়িয়ে আলোচনা করেন। বাচ্চাদের সামনে রেখে দুজনই শাকিব প্রসঙ্গে এনে নানা কথা বলেন তাঁরা। শাকিবের প্রসঙ্গে কথা বলা নিয়ে সাবেক (শাকিবের ভাষ্যমতে) এই দুই স্ত্রী নিজেদের মধ্যেই দ্বন্দ্বে জড়ান কখনো কখনো। দুজনের এমন ঘটনায় নানা সময় শাকিব বিরক্ত হন। বিরক্ত হন তাঁর পরিবারের সদস্যরাও।

গত ঈদে একটি বেসরকারি টেলিভিশনে শাকিব খানের ব্যক্তিগত সম্পর্কে অনেক কিছুই তথ্য দিয়েছেন বুবলী। একবার বলছেন, ‘আইনগতভাবে আমি এখনো শাকিব খানের বৈধ স্ত্রী।’ শাকিবের সঙ্গে কোয়ালিটি টাইম পার করাসহ নানা বিষয়ে কথা বলেছেন এই নায়িকা।

বুবলীর এসব কথায় শাকিব প্রকাশ্যে কোনো কথা না বললেও বিরক্ত হয়েছেন তিনি। তবে বুবলীর এমন বক্তব্যে প্রকাশ্যে গণমাধ্যমে নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন অপু বিশ্বাস। কয়েক দিন ধরে এসব বেশ চর্চিত হচ্ছে মিডিয়ায়। তাঁকে নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অপু-বুবলী গণমাধ্যমের সামনে কথা বললেও বিষয়টি এড়িয়ে বেশির ভাগ সময়ই চুপচুাপ থেকেছেন শাকিব খান। কিন্তু সম্প্রতি গণমাধ্যমে বুবলীর বিস্ফোরক মন্তব্য এবার পরিবারসহ ভীষণ বিরক্ত হয়েছেন শাকিব খান।

শাকিব পরিবারের বিশ্বস্ত এক ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, এসব কারণে পরিবার থেকে দ্রুতই বিয়ে দিতে চায় শাকিবের। তাঁর জন্য মেয়ে দেখা শুরু করেছে।শাকিবকে নিয়ে নানা সময় অপু-বুবলীর নানা ধরনের আলোচনা-সমালোচনা আর শুনতে চায় না পরিবার। বিচ্ছেদ হওয়ার পরও দুজনের এসব চর্চা, কথাবার্তা সমাজ, আত্মীয়স্বজনের কাছে হেয় হতে হয় বলে মনে করেন তাঁরা। তাই শাকিবের মতামত নিয়ে তাঁর মা, বাবা, বোন, ভগ্নিপতি মিলে পাত্রী দেখা শুরু করেছেন।

অপু ও বুবলী প্রসঙ্গে সূত্রে জানা গেছে, যখন তাঁরা দেখেন মিডিয়ায় তাঁদের নিয়ে কোনো আলাপ-আলোচনা নেই কিংবা তাঁদের সিনেমা মুক্তির সময় হয়, তখন আলোচনায় উঠে আসতে গণমাধ্যমে শাকিব প্রসঙ্গ তুলে কথা বলা শুরু করেন দুজন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে শাকিবের পারিবারিক সূত্র খবরটি জানিয়েছে, শাকিবের জীবনে তাঁরা (অপু বিশ্বাস ও বুবলী) সাবেক হওয়া সত্ত্বেও প্রায়ই বিভিন্ন গণমাধ্যমে নানা ধরনের মন্তব্য করে থাকেন। এতে শাকিব খান যেমন বিব্রত হন, তেমনি তাঁর পরিবারকে অস্বস্তিতে পড়তে হয়। এ কারণে শাকিবের পরিবার তাঁকে বিয়ে দিচ্ছে। সেই মোতাবেক তাঁর জন্য পাত্রী দেখা শুরু হয়েছে। পরিবারের এমন সিদ্ধান্তে শাকিবের পূর্ণ সম্মতি রয়েছে।

শাকিবের পরিবারের এক সদস্যের দাবি, সিনেমা মুক্তির আগে বা ব্যক্তিগত জীবনে নানা ঘটনার কোনো সম্পর্ক না থাকার পরও বুবলী শাকিবের ব্যক্তিগত জীবন জড়িয়ে বিভিন্ন কথা বলেন, যা মিথ্যাচার। ভবিষ্যৎ এমন মিথ্যাচার করলে আইনি ব্যবস্থাও নিতে পারে শাকিবের পরিবার। এমনকি শেহজাদকে নিয়ে যখনই শাকিবের অফিসে বা বাসায় আসেন, তখনই বুবলী ছবি তোলায় তৎপর হন।

সেগুলো পরবর্তী সময়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রকাশ করে শাকিবের সঙ্গে সম্পর্ক আছে দাবি করেন। সন্তানের কথা ভেবে বরাবরই চুপ থাকেন শাকিব। সর্বশেষ ঈদে একটি বেসরকারি টিভিতে শাকিবকে বিভিন্ন মন্তব্য করেছেন বুবলী, এতে শাকিবের পরিবার মারাত্মক চটেছে! এ কারণে বুবলীকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, সন্তান শেহজাদের অজুহাতে তিনি যেন শাকিবের অফিসে না আসেন।

শাকিবের ওই পারিবারিক সূত্র আরও জানায়, প্রতি ঈদে সিনেমা মুক্তির আগে শাকিবকে টেনে বিভিন্ন মিথ্যাচার করেন বুবলী। নিজের সিনেমায় যাতে প্রভাব না পড়ে, এ কারণে শাকিব কিছু বলেন না। তবে গত ঈদে বুবলী যা যা বলেছেন, এতে শাকিব রাগ করেছেন। কলকাতায় গিয়েও বুবলী সাক্ষাৎকারে বলেছেন, শাকিব তাঁর সিনেমার কাজে খুশি, যা পুরোপুরি মিথ্যাচার।

সূত্রটির ভাষ্যমতে, এক সংগীতশিল্পীর সঙ্গে কয়েক মাস আগে বুবলীর সম্পর্ক নিয়ে গুজব রটে। এর পর থেকে বুবলীর সঙ্গে কোনো কথাই বলেন না শাকিব। বুবলীর সম্প্রতি মিথ্যাচারের বিরক্ত হয়ে তাঁকে কড়াকড়িভাবে বাসায় আসতেও বারণ করেছেন শাকিব ও তাঁর পরিবার।
এ-ও বলে দেওয়া হয়েছে, সন্তান শেহজাদ এলে যেন বুবলীর সঙ্গে নয়, পরিবারের অন্যদের সঙ্গে আসে। পারিবারিক ওই সূত্র আরও জানায়, শাকিবের সঙ্গে অপু বিশ্বাসের সম্পর্ক বহু আগেই শেষ। শুধু আব্রামের মা হিসেবে শাকিব তাঁর যথাযথ সম্মান করেন। যেহেতু অপু-বুবলী দুজনেই অতীত, এ কারণে শাকিবের পরিবার তাঁকে নতুন করে বিয়ে দিতে যাচ্ছে চলতি বছরই।

ওই সূত্রে এ-ও জানা গেছে, শাকিব নাকি পরিবারেই ইচ্ছেমতোই বিয়ে করতে চান। পরিবারের পছন্দের মেয়েকেই বিয়ে করবেন। কারণ, আগে দুইবার নিজের পছন্দে বিয়ে করে জটিলতার মধ্যে পড়েছিলেন, আর নাকি সে ভুল করতে চান না তিনি।

এদিকে ঢাকার পার্শ্ববর্তী জেলার একটি মেয়ে শাকিবের বউ হিসেবে পছন্দের ফিসফাস শোনা যাচ্ছে। মেয়েটি নাকি যুক্তরাজ্য থেকে চিকিৎসা বিষয়ে লেখাপড়া করে দেশে ফিরেছেন। শাকিবের ডাক্তার মেয়ে পছন্দ। অনেক বছর আগে ডাক্তার মেয়ে বউ হিসেবে পছন্দের কথা গণমাধ্যমের সামনেও বলেছিলেন শাকিব।
সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে চলতি বছরের শেষের দিকেই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চান ঢাকাই ছবির এই নায়ক।

বলিউড, হলিউডের বড় তারকাদের বিয়ের আয়োজনটা অন্যভাবে হয়। স্মরণীয় রাখতে দেশের বাইরে ভিন্ন জায়গা বেছে নেন। সেই ক্ষেত্রে অনেকেরই আগ্রহ থাকতে পারে, বাংলাদেশের বর্তমান সময়ের সবচেয়ে বড় তারকার বিয়ের আসরটি কোথায় বসবে? এ বিষয়েও নাকি চিন্তা করছেন পরিবারের সদস্যরা।
শোনা যাচ্ছে, দেশের মধ্যে নয়, পার্শ্ববর্তী কোনো দেশের সুন্দর কোনো লোকেশনে বা সুন্দর কোনো দ্বীপে শাকিব খানের বিয়ে অনুষ্ঠানের প্রাথমিক পরিকল্পনা হচ্ছে পরিবার থেকে।

এদিকে রায়হান রাফীর ‘তুফান’ ছবির শুটিংয়ে বর্তমান ভারতে অবস্থান করছে শাকিব খান। ছবিটি ঈদুল আজহায় মুক্তির লক্ষ্যে টানা শুটিং করতে হচ্ছে তাঁকে। পারিবারিক সূত্রে আরও জানা গেছে, শুটিং শেষ করে আগামী মাসের মাঝামাঝিতে দেশে ফেরার কথা আছে। ফেরার পর বিয়ের অগ্রগতি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।

সর্বশেষ

সর্বশেষ