ব্রঙ্কসের আল আকসা পার্টি হলের বাৎসরিক ডিনার, রমজানে ইফতার পার্টির জন্য হলভাড়া মওকুফের ঘোষণা


প্রকাশিত: ১১ জানুয়ারি ২০২৪, ২০:০১
...
নিউইয়র্ক সিটির বাংলাদেশি অধ্যুষিত ব্রঙ্কসের আল-আকসা পার্টি হলের প্রেসিডেন্ট এবং সিইও আলী হায়দার বলেছেন, আসন্ন রমজান মাসে রোজাদারদের জন্য যারা পার্টি আয়োজন করবেন তাদের কোন হলভাড়া দিতে হবে না। আয়োজকদের ইফতার আইটেমেও থাকবে বিশেষ ছাড়। তিনি এই সুযোগ গ্রহণ করার জন্য নিউইয়র্কের বিভিন্ন সংগঠনের কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। গত মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সিটির স্থানীয় নির্বাচিত অফিসিয়ালদের সম্মানে আয়োজিত এক ডিনার অনুষ্ঠানে তিনি এই ঘোষণা দেন। ১৪১৬ ইউনিয়ন পোর্ট রোড, ব্রঙ্কসে অবস্থিত আল আকসা পার্টি হলে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। খবর ইউএনএ’র।

অনুষ্ঠানে কমিউনিটি বোর্ড-৯ এর পক্ষ থেকে আল-আকসা পার্টি হলের সিইও আলী হায়দারের কাছে একটি সম্মাননা পত্র তুলে দেয়া হয়। সম্মাননাটি তুলে দেন কমিউনিটি বোর্ড-৯ এর ডেপুটি ডিস্ট্রিক্ট ম্যানেজার শার্লি আলোনজো। এছাড়াও ষ্টেট সিনেটর নাটালিয়া ফার্ন্দান্দেজের পক্ষ থেকে একটি সাইটেশন প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কমিউনিটি বোর্ড-৯ এর ডিস্ট্রিক্ট ম্যানেজার উইলিয়াম রিভেরা, ফাস্ট ভাইস চেয়ার এন্ডেও মার্টিনেজ, সেকেন্ড ভাইস চেয়ার মিশেল হেলপার্ন, কোষাধ্যক্ষ হেনরি পিলায়ো প্রমুখ। এছাড়াও বাংলাদেশী কমিউনিটির পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন পার্কচেস্টার কমিউনিটি বোর্ড চেয়ারম্যান এডভোকেট এন মজুমদার, কমিউনিটি নেতা আব্দুস শহীদ, আব্দুর রহিম বাদশাহ, সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিষ্ট এ ইসলাম মামুন, সিপিএ জাকির চৌধুরী, ডিটেকটিভ মাসুদুর রহমান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে আলী হায়দার বলেন, তাদের চাইনিজ রেস্টুরেন্ট সংলগ্ন পার্টি হলটি সপ্তাহের ৭দিনই খোলা থাকে। তারা ৫ বরোর সর্বত্রই ক্যাটারিং করে থাকেন। স্থানীয়ভাবেও যে কেউ অর্ডার দিয়ে তাদের চাইনিজ খাবার অর্ডার করতে পারেন। ডেলিভারিরও ব্যবস্থা রয়েছে।
চাইনিজ রেস্টুরেন্ট সম্পর্কে আলী হায়দার বলেন, আমরা ফ্যামিলি প্রাইভেসির জন্য প্রতিটি টেবিলকেই আলাদা পার্টিশান দিয়ে একটা বুথ আকারে তৈরী করেছি। পাশাপাশি বেশি আলো ঝলমলে না করে একটু মৃদু আলোর ব্যবস্থা করেছি। সঙ্গে থাকছে সফট মিউজিক। সব মিলিয়ে একটা ‘নাইস এন্ড কোয়াইট’ পরিবেশ যা গ্রাহকরা উপভোগ করবেন বলে তিনি দাবি করেন।

তিনি বলেন, আমরা এখন আমাদের ‘কাষ্টমারদের রিভিউ’ নেয়ার চেষ্টা করছি। তারা যে পরামর্শগুলো আমাদের দিচ্ছেন, আমরা সেভাবেই প্রতিনিয়ত খাবারের গুনগত মানকে ঢেলে সাজাবার চেষ্টা করছি। আমরা বিশ্বাস করি আল আকসা চায়নিজ ধীরে ধীরে ভোজন রসিক মানুষের আস্থা এবং নির্ভরতার প্রতীকে পরিণত হবে। তিনি তাদের পার্টি হল এবং চাইনিজ রেস্টুরেন্টের সেবা গ্রহনের জন্য প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রতি আহবান জানান।

এডভোকেট এন মজুমদার আল আকসা পার্টি হলের ব্যবস্থাপনা, খাবার ইত্যাদির প্রশংসা করে বলেন, আমি নিজে এবং আমার পরিচিত অনেকেই এখানে পার্টি করে তাদের উচ্ছসিত প্রশংসা করেছেন। কমিউনিটির এই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটির অগ্রগতির জন্য তিনি এলাকাবাসী সহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

প্রতিকূল পরিবেশের মধ্যেও অনুষ্ঠানে কমিউনিটির আমন্ত্রিত অতিথিসহ কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। নৈশ ভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

উল্লেখ্য, ব্রঙ্কসের স্টার্লিং এভিনিউর কাছে ১৪১৬ ইউনিয়নপোর্ট রোডে মনোরম সাজসজ্জায় আল-আকসা পার্টি হলের পাশে রয়েছে আল আকসা চাইনিজ রেস্টুরেন্ট। প্রতিদিন বেলা ১২টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সপ্তাহের ৭ দিনই খোলা থাকছে প্রতিষ্ঠানটি। প্রায় অর্ধ শতাধিক পদের মেন্যু থেকে ক্রেতারা তাদের পছন্দের আইটেমগুলো বেছে নিতে পারেন। ঢাকার আদলে ডেকোরেশন আর খাবারের স্বাদে বৈচিত্র এটাই আল আকসা চায়নিজের প্রধান বৈশিষ্ট। কোন কোন আইটেমের দামের ব্যাপারেও রয়েছে বিশেষ ছাড়।

সর্বশেষ

সর্বশেষ