রাশিয়ার বিরুদ্ধে কানে তরুণীর ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২৩, ১৪:০৫
...
কান চলচ্চিত্র উৎসবে রাশিয়ার বিরুদ্ধে হুংকার দিলেন ইউক্রেনের এক নারী। এর আগেও অনেকবার কান চলচ্চিত্র উৎসবের লাল গালিচাকে প্রতিবাদের মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করেছেন অনেকেই। তবে তার প্রতিবাদের ভাষা একটু ভিন্ন ধরনের। 

বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে, ওই তরুণী সিঁড়ির উপর দাঁড়িয়ে নিজের শরীরে ভিতর থেকে গোপনে রাখা দুটি বেলুন বের করে চাপ দিয়ে ফাটাতেই সারা শরীর লাল রঙে ভেসে যায়। আন্তর্জাতিক স্তরে প্রতিবাদের জন্য চলচ্চিত্র উৎসবের এ মঞ্চটি বেশ ‘জনপ্রিয়’। ২১ মে ৭৬তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের সেই চোখধাঁধানো মঞ্চের সামনে হেঁটে এলেন ইউক্রেনের পতাকার রঙের পোশাক পরিহিতা এক তরুণী। ‘প্যালেস দে ফেস্টিভ্যাল’এর সিঁড়িতে দাঁড়িয়ে ইউক্রেনের উপর হওয়া রুশ হামলার প্রতিবাদস্বরূপ গায়ে ঢাললেন প্রতীকী রক্ত।

বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালের প্রতিবেদন অনুযায়ী ফরাসি অভিনেত্রী ক্যাথরিন ডেনিউভ, ইউক্রেনীয় কবি লেস্যা ইউক্রেনকার ‘হোপ’ কবিতাটি আবৃত্তি করে যুদ্ধে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। ফরাসি চলচ্চিত্র পরিচালক জাস্ট ফিলিপটের ‘অ্যাসিড’ চলচ্চিত্রটি প্রদর্শনের সময়ে ওই তরুণী এমন দুঃসাহসিক কাণ্ডটি ঘটান। যদিও নিরাপত্তা রক্ষীদের চোখে পড়ামাত্রই তৎক্ষণাৎ তাকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু ততক্ষণে উপস্থিত সাংবাদিকদের ক্যামেরা বন্দি হয়ে যায় পুরো ঘটনাটি।

গত বছর এই একই মঞ্চে ইউক্রেনের এক তরুণী রাশিয়ার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে এমনভাবেই নগ্ন হয়ে প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেছিলেন। তার বুকের উপর আঁকা নীল এবং হলুদ পতাকার উপর ফুটে উঠেছিল একটি বার্তা ‘ধর্ষণ বন্ধ করুন’।

সর্বশেষ